অনেক কারখানা বন্ধ হয়ে যাবে, ভয় বিজিএমইএ সভাপতির

ঢাকা পোষ্ট প্রকাশিত: ০৬ আগস্ট ২০২২, ১৩:৪২

বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমছে, বাংলাদেশে উল্টো বাড়ানো হয়েছে। এই অবস্থায় বিশ্ববাজারে টিকে থাকা আমাদের জন্য কস্টকর হবে। পুরোনো অর্ডারগুলোতেই প্রচুর লস হবে। অনেক কারখানা নতুন অর্ডার নিতে পারবে না। ফলে অনেক কারখানা বন্ধ হয়ে যাবে।


জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পরিণতি কী হতে পারে, সে বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা পোস্টকে এসব কথা বলেন দেশের তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান।


তিনি বলেন, এই মুহূর্তে কারখানায় গ্যাংস সংকট, সরকার নির্দেশিত লোডশেডিংয়ের কারণে বিদ্যুৎ থাকে না ৫-৬ ঘণ্টা। এ কারণে দিনে ৬ ঘণ্টার জন্য জেনারেটর ব্যবহার করতে হয়। জেনারেটরের ব্যবহার বাড়ায় বেশি জ্বালানি তেল ব্যবহার করতে হচ্ছে। এ অবস্থায় জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি পোশাক খাতের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। কারণ আমাদের হাতে প্রচুর অর্ডার রয়েছে। বড় অংকের লস দিয়ে এসব অর্ডারের পণ্য উৎপাদন করতে হবে।


তিনি আরও বলেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় দেশে পরিবহন ভাড়া বাড়বে, ট্রাক ভাড়া বাড়বে, জিনিসপত্রের দাম বাড়বে, বাড়বে মুদ্রাস্ফীতি। এসবের সাথে শ্রমিকদের বেতনও বাড়াতে হবে। লস থেকে বেঁচে থাকতে হলে অনেক কারখানা বন্ধ করা ছাড়া কেনো উপায় থাকবে না।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
ঘটনা প্রবাহ

দেশের মানুষ এভাবে আর চালাতে দেবে না: ফখরুল

প্রথম আলো | বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়
১১ ঘণ্টা, ১৩ মিনিট আগে

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে জাপার দুই দিনের কর্মসূচি

বার্তা২৪ | জাতীয় পার্টি (জাপা) কেন্দ্রীয় কার্যালয়
১২ ঘণ্টা, ২০ মিনিট আগে

নয়াপল্টনে রাস্তা অবরোধ করে বিএনপির বিক্ষোভ

যুগান্তর | বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়
১৪ ঘণ্টা, ৫৪ মিনিট আগে

তেলের গরমে সড়ক শীতল

১৫ ঘণ্টা, ১০ মিনিট আগে

শিল্পাঞ্চলভিত্তিক আলাদা সাপ্তাহিক ছুটির ভাবনা, ব্যবসায়ীরাও ‘একমত’

বিডি নিউজ ২৪ | বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়
১১ ঘণ্টা, ২৩ মিনিট আগে

সংবাদ সূত্র

News

The Largest News Aggregator
in Bengali Language

Email: [email protected]

Follow us