আলিঙ্গন করা কেন এত উপকারী এবং দিনে কতবার আলিঙ্গন করা জরুরি?

প্রথম আলো প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:৩৮

আজ ১২ ফেব্রুয়ারি, হাগ ডে বা আলিঙ্গন দিবস। একটু উষ্ণ আলিঙ্গনের মাধ্যমে পরস্পরের মধ্যে ভালোবাসার আদান-প্রদান ঘটে। শুধু ভালোবাসার মানুষের ক্ষেত্রেই নয়; পরিবারের সদস্য, বন্ধুবান্ধব সবার সঙ্গেই আলিঙ্গন করা উচিত। জানেন কি, আমরা কখন একে অপরকে আলিঙ্গন করি? যখন সুখে বা দুঃখে থাকি, কোনো বিষয়ে অধীর হই কিংবা কাউকে সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করি, তখন অন্যের সঙ্গে আলিঙ্গনে আবদ্ধ হই। এটা আমাদের স্বস্তি দেয়। শুধু এসবই কেন, এর স্বাস্থ্যগত অনেক উপকারিতাও আছে। আলিঙ্গনের ফলে ভয়, দুশ্চিন্তা, ব্যথা দূর হয়ে যায়। এমনকি ইমিউন ও কার্ডিওভাস্কুলার-সংক্রান্ত স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রেও সহায়ক ভূমিকা পালন করে। চলুন, জেনে নিই আলিঙ্গন করার আরও কিছু উপকারিতার কথা—


মানসিক চাপ কমায়
বন্ধুবান্ধব কিংবা পরিবারের কোনো সদস্যকে যদি আপনি বেদনাদায়ক বা অস্বস্তিকর কোনো পরিস্থিতির ভেতর দিয়ে যেতে দেখেন, তাহলে বুকে জড়িয়ে নিন। উষ্ণ আলিঙ্গনে আবদ্ধ করুন। বিজ্ঞানীরা বলেন, আপনার স্পর্শ পেয়ে হয়তো অন্য কারও মানসিক চাপ কমে যেতে পারে। এটা তার জন্য বড় ধরনের ‘সাপোর্ট’ হতে পারে। এর ফলে এমনকি উভয়েরই মানসিক চাপ কমে যেতে পারে।


অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা কমায়
আলিঙ্গনের ফলে মানসিক চাপ কমে যাওয়ার প্রভাব আমাদের দৈনন্দিন সুস্থতার ক্ষেত্রেও পড়ে। আমেরিকান ইনডিপেনডেন্ট একাডেমিক পাবলিশিং কোম্পানি প্রকাশিত সেজ জার্নালস চার শতাধিক প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির ওপর একটি গবেষণা করে। গবেষকেরা সেখানে দেখেন, আলিঙ্গন কোনো ব্যক্তির অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা হ্রাস করতে পারে। এ সময় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যাঁরা বেশি আলিঙ্গন পেয়েছেন, তাঁদের অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা কম ছিল।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
ট্রেন্ডিং

সংবাদ সূত্র

News

The Largest News Aggregator
in Bengali Language

Email: [email protected]

Follow us