গুম না হয়ে থাকলে স্বাধীন তদন্তে আপত্তি কেন

প্রথম আলো কামাল আহমেদ প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:২৯

গুমের অভিযোগ নিয়ে জোর আলোচনার মধ্যে জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদে সরকারের একটা আনুষ্ঠানিক বক্তব্য পাওয়া গেছে। ‘গুম’ শব্দটি ব্যবহার না করে সরকার বলেছে, কোনো ব্যক্তি নিখোঁজ বলে জানানো হলে স্বজনদের দেওয়া তথ্য যথাযথ আইন অনুযায়ী তদন্ত সাপেক্ষে ভুক্তভোগীকে উদ্ধারে সরকার বদ্ধপরিকর।


সরকারের এ বক্তব্যে কি কিছুটা নতুনত্ব আছে? যদিও একই সঙ্গে বলা হয়েছে, গুমের শিকার বলে ধারণা করা ব্যক্তি অনেক ক্ষেত্রেই ফেরত এসে প্রমাণ করেছেন, গুমের অভিযোগ ঠিক নয়।


সরকার যাঁদের ‘নিখোঁজ’ বলছে, তাঁদের উদ্ধারের জন্য তদন্ত, অর্থাৎ অভিযোগে পাওয়া তথ্যগুলো যাচাইয়ের প্রয়োজনের কথাটা আগে শোনা যায়নি, বরং একে ভিত্তিহীন এবং রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের অপপ্রচার বলে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ অন্য মন্ত্রীরা দেশের ভেতর রাজনৈতিক বক্তৃতায় এখনো একই কথা বলে চলেছেন।


অভিযোগের তদন্ত প্রয়োজন, সে কথা স্বীকার করতে চাননি। তদন্ত কেন প্রয়োজন, তা মানবাধিকার পরিষদে দেওয়া সরকারের বক্তব্যে কিছুটা হলেও উঠে এসেছে। যখন বলা হচ্ছে, ‘দুষ্কৃতকারীরা’ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে ‘অপহরণ’-এর মতো অপরাধে লিপ্ত হচ্ছে বলে একটি প্রবণতা সরকার লক্ষ করছে, তখন এ তদন্ত অপরিহার্য। সবটাই তো আর পরিচয় ব্যবহার করা নয়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এ ধরনের অপরাধ করছে না, তা প্রমাণ করতে হলেও তদন্ত প্রয়োজন।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

সংবাদ সূত্র

News

The Largest News Aggregator
in Bengali Language

Email: [email protected]

Follow us