শিশুর খাবারে অ্যালার্জি এবং প্রতিকার

কালের কণ্ঠ প্রকাশিত: ০৬ আগস্ট ২০২২, ১১:৩২

অ্যালার্জির আভিধানিক অর্থ হলো স্পর্শকাতরতা, অতি প্রতিক্রিয়া, প্রতিক্রিয়াপ্রবণতা, বিতৃষ্ণা, বিরাগ ইত্যাদি। তবে ক্ষেত্রে বিশেষ বিশেষ খাদ্য, পতঙ্গদংশন, ফুলের পরাগরেণু ইত্যাদির প্রতি কারো কারো শারীরিক অতি স্পর্শকাতরতা বা অতি সংবেদনশীলতাকে অ্যালার্জি বলে। শরীরে অবস্থিত অ্যান্টিবডি-অ্যান্টিজেনের অতি সংবেদনশীলতা বা রি-অ্যাকশনের কারণে অ্যালার্জির সৃষ্টি হয়। শিশুদের নানা রকম অ্যালার্জি হতে পারে।


এসবের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ফুড অ্যালার্জি বা খাবারে অ্যালার্জি।


অ্যালার্জিপ্রবণ খাবার


►   দুধ


►   ডিম


►   মাছ (চিংড়ি, ইলিশ, সামুদ্রিক)


►   মাংস (গরু, হাঁস)


►   সবজি (বেগুন, কচু, গাজর, আপেল)


►   বাদামজাতীয় খাবার (চিনাবাদাম, মটরশুঁটি)


►   শামুকজাতীয় খাবার।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

সংবাদ সূত্র

News

The Largest News Aggregator
in Bengali Language

Email: [email protected]

Follow us