আফগানিস্তানে বন্যায় নিহত ৪০০

ঢাকা টাইমস প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০২২, ১৭:৩২

সাম্প্রতিক সময়ে বন্যায় আফগানিস্তানে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪০০। এছাড়াও অনেক আর্থিক ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়। ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে বুধবার ঘটে যাওয়া মারাত্মক ভূমিকম্পে আটকে পড়া ক্ষতিগ্রস্তদের বাঁচানোর প্রচেষ্টাও বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। খবর দ্য টেলিগ্রাফের। আফগানিস্তানের প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক উপমন্ত্রী মাওলাভি শরফুদ্দিন মুসলিম জানিয়েছেন, আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বন্যায় যাদের বাসস্থান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে এবং তাঁবু দেওয়া হয়েছে।


দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক সময়ে ভারী বর্ষণের ফলে বন্যা এবং দেশের দক্ষিণ-পূর্ব অংশে দুই দশকেরও বেশি সময় পর বুধবার ঘটে যাওয়া মারাত্মক ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা সহস্রাধিক। এই সপ্তাহে দেশের বিভিন্ন অংশে শুধু বন্যায় নিহত হয়েছে প্রায় ৪০০ জন। আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থাগুলির দাবি, বৃষ্টির কারণে ৬.১ মাত্রার ভূমিকম্পের পর আটকে পড়া বা গৃহহীনদের কাছে পৌঁছানোর প্রাথমিক প্রচেষ্টা ব্যাহত হচ্ছে। প্রাথমিক অনুমানে ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা প্রায় ১ হাজার এবং আহত আরো ১ হাজার ৫০০ জন। তবে খোস্ত এবং পাকতিকা প্রদেশের কেন্দ্রস্থলের নিকটবর্তী প্রত্যন্ত গ্রামগুলি থেকে তথ্য পাওয়ার পর ধারণা করা হচ্ছে হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়বে।


কুনার, নানগারহার, নুরিস্তান, লাঘমান, পাঞ্জশির, পারওয়ান, কাবুল, কাপিসা, ময়দান ওয়ারদাক, বামিয়ান, গজনি, লোগার, সামানগান, সার-ই-পুল, তাখার, পাকতিয়া, খোস্ত এবং দাইকুন্ডিতে বন্যার খবর পাওয়া গেছে বলে দেশটির সংবাদ মাধ্যম টোলো নিউজ জানিয়েছে। এদিকে তালেবান কর্মকর্তারা আন্তর্জাতিক সাহায্যের আহ্বান অব্যাহত রেখেছে। জাতিসংঘ মানবিক সহায়তা নিয়ে সক্রিয় ছিল। ভারত, পাকিস্তান এবং দক্ষিণ কোরিয়ার মতো দেশগুলো তাদের দুর্যোগে সহায়তা করবে বলেও ঘোষণা করেছে। 

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

সংবাদ সূত্র

News

The Largest News Aggregator
in Bengali Language

Email: [email protected]

Follow us