অর্থনীতির বড় সমস্যা বৈষম্য

যুগান্তর ড. আর এম দেবনাথ প্রকাশিত: ১৪ মে ২০২২, ০৮:৪৯

কোন দিকে যাই? সয়াবিন তেলের বাজারে শান্তি নেই, আবার পেঁয়াজের বাজারেও শান্তি নেই। যুদ্ধ করছে রাশিয়া ও ইউক্রেন। সয়াবিন তেল রপ্তানি বন্ধ করেছে আর্জেন্টিনা; পাম অয়েল রপ্তানি বন্ধ করেছে ইন্দোনেশিয়া। অতএব সয়াবিন আর পাম অয়েলের মূল্যবৃদ্ধি বাজারে। এদিকে বাংলাদেশ আমদানি বন্ধ করেছে পেঁয়াজের। অথচ বাজারে পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি। দুই দিকেই অশান্তি।


অধিকন্তু অশান্তি সৃষ্টি করলেন ‘দেশপ্রেমিক’ সয়াবিন ব্যবসায়ীরা। সরকারের সঙ্গে অঙ্গীকার ভঙ্গ করে তারা বাজার থেকে হঠাৎ সয়াবিন উধাও করে দিলেন। তারপর সয়াবিন ও পাম অয়েলের দাম একতরফাভাবে বাড়ালেন। বাণিজ্যমন্ত্রী হতাশা প্রকাশ করলেন। করারই কথা, সয়াবিন ব্যবসায়ীরা তারই ঘনিষ্ঠ বন্ধু। বাণিজ্যমন্ত্রী নিজেও বিরাট ব্যবসায়ী। ফল হচ্ছে, সয়াবিন তেলের দাম দুই দফা বৃদ্ধি। উধাও করার ফলস্বরূপ যে মূল্যবৃদ্ধি হয়েছে, তার বোঝাও সাধারণ মানুষের ওপর।


অথচ কাগজে কত হিসাব। মাসিক চাহিদা কত, মাসিক আমদানি কত, দেশে কত তেল ক্রাশ হয়, আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কত? ব্যাখ্যার পর ব্যাখ্যা। ব্যাখ্যা মূল্যবৃদ্ধিকে যৌক্তিক করার জন্য। অথচ এখন দেখা যাচ্ছে, ‘দেশপ্রেমিক’ সয়াবিন ও পাম অয়েল ব্যবসায়ীদের গুদাম থেকে সমানে তেল বেরোচ্ছে। লুকানো তেল এখন প্রশাসন খুঁজে খুঁজে বের করছে। জরিমানা করছে দায়ী ব্যবসায়ীদের। কী জরিমানা? কয়েক হাজার টাকার জরিমানা।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

সংবাদ সূত্র

News

The Largest News Aggregator
in Bengali Language

Email: [email protected]

Follow us