কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

জুড়ী নদীর ২০ একর ভূমি পুনরুদ্ধার

মানবজমিন প্রকাশিত: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার জুড়ী নদীর দুই তীরের অবৈধ দখল হয়ে যাওয়া আনুমানিক ২০ একর ভূমি জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পুনরুদ্ধার করা হয়েছে। নদীটি ভরাট হয়ে মরে যাওয়ায় পানি উন্নয়ন বোর্ড খননের উদ্যোগ নিয়েছে। এজন্য কোটি কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। কিন্তু দুই পাড়ের অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে সরকারি খাস জমি উদ্ধার করা যাচ্ছিল না। অবশেষে জেলা প্রশাসনের সহায়তা নিতে হয়েছে পাউবো’কে। জেলা প্রশাসন উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে ভূমি উদ্ধার করেছে। সরজমিনে দেখা যায়, নদীর দুই তীরের ভূমি অবৈধভাবে দখল করে বিভিন্ন ব্যক্তি পাকা দালান-কোঠা নির্মাণ করে তা বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করে আসছিল। এসব জায়গার স্থাপনাগুলো প্রশাসন ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছে। এ সময় কিছু ভূমির মালিক উচ্চ আদালতের রিটের কাগজপত্র দেখানোয় প্রশাসন সেগুলো স্থাপনা উচ্ছেদ করতে পারেনি। যাদের কেউ কেউ তাদের ভূমির আরএস পর্চা দেখিয়েছে। সেসব ভূমিতে উচ্ছেদ চালানো সম্ভব হয়নি। তবে প্রশাসন সরকারের প্রায় ২০ একর ভূমি অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে উদ্ধার করেছে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মালিকেরা অবৈধভাবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি অবৈধভাবে দখল করে রেখেছিলেন, যা সরকারের দখলে আনা হয়। গত ২৪শে ফেব্রুয়ারি উচ্ছেদ অভিযান চলাকালীন সময় পর্যন্ত জুড়ী নদীর দুই তীর থেকে আনুমানিক ২০ একর ভূমি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তিনি। জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেট অর্ণব মালাকার বলেন, সরকারি ভূমি অবৈধভাবে দখল করে রাখা যায় না। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল ইমরান রুহুল ইসলাম বলেন, যেসব ভূমির আরএস পর্চা ব্যক্তি মালিকানায় হয়েছে তা সংশোধন করতে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে মামলা করা হবে। নদী, খাল-বিল ইত্যাদি সরকারি জায়গা দখল করে কেউ স্থাপনা নির্মাণ করলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে তা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়া অব্যাহত থাকবে।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

আরও