কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

জারদারি, গিলানি অভিযুক্ত, নওয়াজ শরীফ পলাতক

মানবজমিন প্রকাশিত: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০

তোশখানা রেফারেন্সে বুধবার ইসলামাবাদের জবাবদিহিতা বিষয়ক আদালত অভিযুক্ত ঘোষণা করেছে সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারি, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানিকে। একই সঙ্গে পলাতক ঘোষণা করেছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফকে। এ ছাড়া অভিযুক্ত করা হয়েছে আনোয়ার মাজিদ ও আবদুল গণি মাজিদ নামে দু’জনকে। জারদারি ও গিলানি সহ অভিযুক্ত চার ব্যক্তির সবাই নিজেদেরকে নির্দোষ দাবি করেছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এক্সপ্রেস ট্রিবিউন। এতে আরো বলা হয়, বিচারপতি সৈয়দ আসগার আলী সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অন্যদের থেকে আলাদা করে আলাদা মামলা হিসেবে গণ্য করেন। এরপর তাকে পলাতক ঘোষণা করেন। আদালত এরপরেই তার সমস্ত স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে বলেন এবং এসব বিষয়ে সাত দিনের মধ্যে আদালতকে জানানোর নির্দেশ দেন। তাকে গ্রেপ্তার কিভাবে করা যাবে এবং কিভাবে আদালতে উপস্থিত করা হবে এ বিষয়টি পরিষ্কার হতে বলা হয়। নওয়াজ শরীফ যদি আদালতে উপস্থিত হতে ব্যর্থ হন তাহলে তার সব সম্পত্তি জব্দ করা হবে বলে সতর্ক করেন বিচারক আসগার আলী। তবে নিজের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের বিরোধিতা করেছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি। তিনি বলেছেন, তিনি আইনের বিরুদ্ধে কোনো কিছুই করেন নি। তিনি বলেন, আইন অনুযায়ী তার কাছে যেসব বিষয় উত্থাপিত হয়েছিল ক্ষমতায় থাকাকালে তিনি শুধু সেটাই অনুমোদন দিয়েছেন। যখন দেখেছেন সামারিতে ভুল বা অন্যায় কিছু আছে, তখন তা অনুমোদন দেয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি। জবাবদিহিতা বিষয়ক এই আদালতের বিচারক জানিয়েছেন, আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমরা এখনও মামলাটির মেরিট নিয়ে আলোচনা করছি না। কিভাবে সামারি এসেছে বা তা অনুমোদন দেয়া হয়েছে, তা নিয়েও আলোচনা করছি না। বিচার চলাকালে এসব কথা আপনাকে বলতে হবে কোর্টে। তবুও গিলানি যুক্তি উত্থাপন করেন যে, ন্যাশনাল একাউন্টেবলিটি ব্যুরো যে রেফারেন্স এনেছে তা আইন অনুযায়ী আনা হয় নি। অবশেষে এ মামলার প্রত্যক্ষদর্শী ওয়াকার উল হাসান শাহ, জুবাইর সিদ্দিকী এবং ইমরান জাফরকে পরবর্তী শুনানির দিন আদালতে হাজির করার নির্দেশ দিয়ে আগামী ২৪ শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শুনানি মুলতবি করেন বিচারক।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

এই সম্পর্কিত

আরও