কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

লঞ্চ দুর্ঘটনার তদন্ত কমিটি পুনর্গঠন ও সুষ্ঠু তদন্তের দাবি

সমকাল প্রকাশিত: ০৩ জুলাই ২০২০, ২১:০৮

রাজধানীর শ্যামবাজার এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চ ‘এমএল মর্ণিং বার্ড’ দুর্ঘটনায় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্য সচিবের দায়িত্ব থেকে বিআইডব্লিউটিএ এর পরিচালক (নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক) রফিকুল ইসলামকে অব্যাহতি প্রদানের দাবি জানিয়েছে দুটি বেসরকারি সংগঠন। একই সঙ্গে পুরাতন ও জরাজীর্ণ ছোট লঞ্চ মর্ণিং বার্ডকে বছরের পর বছর ফিটনেস (সার্ভে) প্রদানে জড়িত শিপ সার্ভেয়ারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটনের স্বার্থে সুষ্ঠু ও প্রভাবমুক্ত তদন্তের দাবি জানিয়েছে তারা। শুক্রবার গ্রিন ক্লাব অব বাংলাদেশের (জিসিবি) সভাপতি নুরুর রহমান সেলিম এবং নৌ, সড়ক ও রেলপথ রক্ষা জাতীয় কমিটির সভাপতি হাজী মোহাম্মদ শহীদ মিয়া এক যৌথ বিবৃতিতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের প্রতি এই আহ্বান জানান।


বিবৃতিতে বলা হয়, ২০১৪ সালের ৪ আগস্ট পদ্মার মাওয়ায় এমএল পিনাক-৬ লঞ্চ দুর্ঘটনায় গঠিত উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে দায়ী কর্মকর্তাদের তালিকায় বিআইডব্লিউটিএ এর তৎকালীন পরিচালক (নৌনিরাপত্তা ও ট্রাফিক) শফিকুল হক ও একই বিভাগের যুগ্ম পরিচালক রফিকুল ইসলাম ছিলেন। কিন্তু অদৃশ্য কারণে এই দুজনের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি কর্তৃপক্ষ। ইতোমধ্যে শফিকুল হক অবসরোত্তর ছুটিতে গেছেন এবং রফিকুল ইসলাম পদোন্নতি পেয়ে পরিচালক হয়েছেন। এবার সেই রফিকুল ইসলামকেই তদন্ত কমিটির সদস্য সচিব করা হয়েছে।


যা সম্পূর্ণ অপ্রত্যাশিত ও অগ্রহণযোগ্য। বিবৃতিতে বলা হয়, এছাড়া তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক ও সদস্য সচিব পদে কারিগরি বিশেষজ্ঞ রাখা হয়নি। যা অতীতের যেকোনো নৌদুর্ঘটনার পর তদন্ত কমিটি গঠনের প্রচলিত রীতি ভঙ্গ করা হয়েছে। সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে দুই শীর্ষ পদের অন্তত একটিতে কারিগরি বিশেষজ্ঞ রাখা আবশ্যক।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

আরও