কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসএসসিতে ১৪ বিদ্যালয়ের শতভাগ পাশ

ডেইলি বাংলাদেশ প্রকাশিত: ৩১ মে ২০২০, ২১:৪২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে জিপিএ-৫ পাওয়ার দিক দিয়ে এগিয়ে রয়েছে জেলার ঐতিহ্যবাহী অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। এই বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২৬জন। এছাড়া জেলার ১৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শতভাগ পাশ করেছে। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ১টি, কসবা উপজেলায় ৫টি, বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় ৩টি, নাসিরনগর উপজেলায় ১টি, নবীনগর উপজেলায় ২টি ও আখাউড়া উপজেলার ২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা এই তথ্য জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা সদরের ঐহিত্যবাহী অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর ৩১৯ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৩১৬ জন। এরমধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২৬ জন। পাসের হার ৯৯ দশমিক ৬ শতাংশ। জেলা সদরের সাবেরা সোবহান সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় থেকে এ বছর ৩৩৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে পাশ করেছে ৩২৫ জন।

এরমধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৩ জন। পাসের হার ৯৭ দশমিক ১ শতাংশ। জেলা সদরের গভ. মডেল গার্লস হাইস্কুল থেকে এ বছর ২০৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে পাশ করেছে ১৯৬ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৬ জন। পাসের হার ৯৫ দশমিক ৬১ শতাংশ। সদর উপজেলার অঙ্কুর-অন্বেষা বিদ্যাপিঠ থেকে এ বছর ১২ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই পাশ করেছে। পাসের হার শতভাগ।

আশুগঞ্জ উপজেলার আশুগঞ্জ সারকারখানা স্কুল থেকে এ বছর ১২৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে পাশ করেছে ১২০ জন। এরমধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৯ জন। পাসের হার ৯৬ শতাংশ। আশুগঞ্জ উপজেলার আশুগঞ্জ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর ৮৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে পাশ করেছে ৮৩ জন। এরমধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৮ জন। পাসের হার ৯৭ দশমিক ৬৫ শতাংশ।

এছাড়া জেলার শতভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বাঞ্ছারামপুর উপজেলার উজানচর কে এন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবছর ১১০ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ শিক্ষার্থী পাশ করেছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ জন। একই উপজেলার সরকারি এস এম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর ৯৭ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ শিক্ষার্থী পাশ করেছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৮ জন। একই উপজেলার এইচ কে আছমাতুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর ৭১ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ শিক্ষার্থী পাশ করেছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৪ জন।

নবীনগর উপজেলার দুটি বিদ্যালয়ে পাসের হার শতভাগ। এ উপজেলা নাটঘর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৫২ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে শতভাগ শিক্ষার্থী পাশ করেছে। তবে কেউ জিপিএ-৫ পায়নি। একই উপজেলার নোয়াগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর ১০৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ শিক্ষার্থী পাশ করেছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

আরও