কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

করোনায় মনোবল বাড়াতে বেতন বাড়ালো বিলিভআইটি

সমকাল প্রকাশিত: ৩১ মে ২০২০, ১৭:২৬

করোনা পরিস্থিতিতে অনেক প্রতিষ্ঠান যখন কর্মী ছাটাই বা বেতন ভাতা অর্ধেক দিচ্ছে তথন মনোবল বাড়াতে কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি করল বিলিভআইটি।২০১৪ সালে বুয়েটের সিএসই ডিপার্টমেন্টের এক ঝাঁক মেধাবী তরুণ লোভনীয় চাকরির হাতছানি এড়িয়ে গড়ে তোলে এই প্রতিষ্ঠান। এটি গতানুগতিক কোনও আইটি ফার্ম নয়। রাইড শেয়ারিং প্লাটফর্ম, একাউন্টিং সফটওয়্যার, সিকিউরিটি সিস্টেম ইত্যাদি নিয়ে যখন প্রায় সব আইটি ফার্ম ব্যস্ত তখন পুরোপুরি ভিন্নভাবে এডুটেক কোম্পানি হিসেবে গড়ে তোলা হয় এই কোম্পানিকে। সরাসরি অর্থলাভ নয়, সমাজের উন্নয়নে ও কল্যাণে কিছু করার তাগিদ থেকেই বিলিভআইটি-র পথচলা শুরু। বিশেষজ্ঞদের মতে, সাধারণ ৩ কারণে এডুটেক কোম্পানি ব্যর্থ হয়।

এক. শিক্ষাখাতের স্টেকহোল্ডারদের না বোঝা দুই. শিক্ষক ও উদ্যোক্তার মাঝে দূরত্ব এবং তিন. ক্রেতা সনাক্তকরণে ব্যর্থতা। গত আট বছরে মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর, বইবাজার.কম স্টার্টআপ, বইবাজ অ্যাপ, লেকচার পাবলিকেশন্স, মিস্ ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ অরগ্যানাইজেশন -এর মতো বৃহৎ প্রতিষ্ঠানকে ক্লায়েন্ট হিসেবে পেয়েছে বিলিভআইটি। সর্বশেষ কোম্পানি মূল্যায়নে একটি আন্তর্জাতিক অডিট ফার্ম বইবাজার.কম-কে ৮.৫ মিলিয়ন ডলার মূল্যমান স্টার্টআপের স্বীকৃতি দেয়।

জানা যায়, বইবাজার.কম-এর সার্চইঞ্জিন এবং ডিস্ট্রিবিউশনে এআই প্রযুক্তির সমন্বয় বইবাজার.কম-এর সিষ্টেমকে ব্যতিক্রমি করে তুলেছে। বর্তমানে বিলিভআইটি শিক্ষা ও শিক্ষা উপকরণ এবং শিক্ষায় সর্বশেষ প্রযুক্তির ব্যবহার ও এর উন্নয়ন নিয়ে গবেষণা করে যাচ্ছে। সম্প্রতি ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতিতে সারাদেশ থমকে গেলে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মাঝে অনলাইন সমাধান পৌঁছে দেয়ার জন্য বিলিভআইটি নিয়ে আসে ৩৬০ ডিগ্রি সমাধান। একই সাথে ওয়েব, অ্যাপ এবং আইভিআর তথা তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে সকল ছাত্রছাত্রীদের কাছে ডিজিটালি পৌঁছানো। উল্লেখ্য যে, ২০১৬ সালে বিলিভআইটি ‘লাইভ এডুফিল্ডফোর্স ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার’ বাস্তবায়ন করেছে যেখানে প্রতিদিন প্রায় হাজার হাজার পাবলিকেশন্স ইন্ডাষ্ট্রিতে কর্মরতদের ব্যবস্থাপনা এবং রিয়েলটাইম নির্দেশনা দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

আরও