কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

মুজিব কুইজের এক একটি প্রশ্ন, এক একটি উপহার সমতুল্য: কামাল আবদুল নাসের

রাকিবুল হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:০৬
আপডেট: ০৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:০৬

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপনে চলছে ১০০ দিনব্যাপী মুজিব কুইজ। আর এই কুইজের এক একটি প্রশ্ন অংশগ্রহণকারীদের জন্য উপহার সমতুল্য বলে মন্তব্য করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী।

৫ জানুয়ারি, মঙ্গলবার রাতে মুজিব কুইজের ‘শেয়ার করেও জিতুন’ লাইভ লটারির পঞ্চম পর্বে অতিথি হয়ে উপস্থিত থেকে এ মন্তব্য করেন তিনি। অনুষ্ঠানটি লাইভ হয় প্রিয়.কমের ফেসবুক ও ইউটিউব চ্যানেলে।

কামাল আবদুল নাসের বলেন, “অংশগ্রহণকারীদের হাতে যে উপহার (প্রশ্নের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন তথ্য) তুলে দেওয়া হচ্ছে এটি কোনো জড় বস্তু নয়, আমরা তুলে দিচ্ছি জ্ঞান, মেধা, প্রজ্ঞা, ইতিহাস। এটির সমন্বয়ে আগামী দিনের বাংলাদেশ তৈরি হবে।”

তিনি জানান, ইতিহাস একটি জাতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইতিহাস থেকে জানা যায় একটি রাষ্ট্র কিভাবে নির্মিত হলো। আর এর জন্য জানা প্রয়োজন সঠিক তথ্য।

অনুষ্ঠানে লাইভ লটারিতে বিজয়ীদের সরাসরি তিনি ফোন করেন এবং তাদের সঙ্গে কথা বলেন।

এ পর্বের বিজয়ীরা হলেন, সৈয়দপুর থেকে এসএম ফজলুল হাসান, নীলফামারী থেকে এমডি সাকিব ইসলাম, যশোর থেকে মাহমুদা বেগম, হাজারীবাগ থেকে ইমরান হোসেইন, টাঙ্গাইল থেকে রাজীব চন্দ্র, গাজীপুর থেকে সরওয়ার এমডি সোয়েব এবং ঢাকা থেকে শাখাওয়াত হোসেইন আশিক।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন প্রিয়.কমের সিইও জাকারিয়া স্বপন। তিনি জানান, ২৯ ডিসেম্বর থেকে ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত ৭১ হাজার ৫৪৯ জন দুই লাখ ১৮ হাজার ২৮৬ বার মুজিব কুইজ সংক্রান্ত পোস্ট শেয়ার করে ‘শেয়ার করে জিতুন’ পর্বে অংশ নিয়েছে।

জাকারিয়া স্বপন আরও জানান, এখন পর্যন্ত শুধু ফেসবুকেই ৭২ লাখ মানুষ মুজিব কুইজ সম্পর্কে জেনেছে বা দেখেছে। ফেসবুকে ২৫ লাখ মানুষ এই কুইজ সম্পর্কিত পোস্টগুলোতে লাইক দিয়েছে বা কমেন্ট করেছে। ৯ লাখ মানুষ কুইজের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছে। ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত চার লাখ মানুষ কুইজ খেলেছেন এবং এখন পর্যন্ত ২৭ লাখ বার কুইজ খেলা হয়েছে। মুজিব কুইজ বিষয়ক ওয়েবসাইটটি পৌনে দুই কোটি বার ভিজিট করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, প্রতিদিনের কুইজের বিজয়ীর পাশাপাশি কুইজটি যারা ফেসবুকে শেয়ার (https://quiz.priyo.com/share-n-win/) করছেন, তাদেরকে নিয়ে প্রতি সপ্তাহের শেষে লটারি করে ৭ জন বিজয়ী নির্বাচিত করা হয়। যারা প্রতিদিনের কুইজ বা কুইজ সংশ্লিষ্ট যেকোন কিছু ফেসবুকে শেয়ার করবেন, তাদেরকে নিয়েই সপ্তাহ শেষে এ লটারি হয়। বিজয়ীদের জন্য প্রতি সপ্তাহেই থাকে বিভিন্ন ধরনের আকর্ষণীয় উপহার।

কুইজে অংশ নিতে https://mujib100.gov.bd অথবা https://quiz.priyo.com ওয়েবসাইট অথবা প্রিয় অ্যাপ (ডাউনলোড লিংক https://dl.priyo.com) এর যেকোনো একটি মাধ্যমে নিবন্ধন করে অংশ নিতে হবে। একজন প্রতিযোগী একটি আইডি দিয়ে প্রতিটি কুইজে একবার অংশগ্রহণ করতে পারবেন। প্রত্যেক প্রতিযোগীকে নাম, ঠিকানা, ছবি, ফোন নাম্বার, ইমেইল/সোশ্যাল মিডিয়া আইডি ব্যবহার করতে হবে, যা বিজয়ীদের ক্ষেত্রে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্মনিবন্ধন সনদের সঙ্গে যাচাই করা হবে। একজন প্রতিযোগীকে একবার নিবন্ধন করলেই চলবে। পূর্বে নিবন্ধন করে থাকলে নতুন করে নিবন্ধনের প্রয়োজন নেই। ভুল তথ্য দিয়ে অংশগ্রহণ করলে তাকে পরবর্তীতে অযোগ্য বিবেচনা করা হবে।প্রতিযোগিতায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্মের উপর এমসিকিউ পদ্ধতিতে প্রশ্ন থাকছে।

প্রতিদিন একটি নতুন কুইজ দেওয়া হয় এবং কুইজের মেয়াদ ২৪ ঘণ্টা (০০:০১ মিনিট হতে ২৩:৫৯ মিনিট পর্যন্ত)। প্রতিদিন সঠিক উত্তরদাতাদের মধ্যে থেকে লটারির মাধ্যমে ১০০ জন বিজয়ীর সবাই পাবেন ১০০ জিবি করে মোবাইল ডাটা এবং তাদের মধ্যে প্রথম ৫ জন পাবেন স্মার্টফোন। এ ছাড়া পুরো প্রতিযোগিতায় গ্রান্ড প্রাইজ হিসেবে থাকবে মোট ১০০টি ল্যাপটপ।বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় এ অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে- জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি। সহায়তা করছে- শিক্ষা মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন। কুইজটির স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার- তথ্য মন্ত্রণালয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। আর এটির বাস্তবায়ন সহযোগী প্রিয়.কম।

এছাড়াও এ আয়োজনে সার্বিকভাবে আছে দারাজ বাংলাদেশ, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনাইটেড গ্রুপ ও টেলিটক বাংলাদেশ।