সাবেক পিসিবি সভাপতি নাজাম শেঠি (বামে) ও বর্তমান পিসিবি সভাপতি এহসান মানি ছবি: সংগৃহীত

নাজাম শেঠির পদত্যাগ, পিসিবির নতুন সভাপতি এহসান মানি

পাকিস্তানের মসনদে ইমরান বসতে না বসতেই দেশটির ক্রিকেটে লাগল পরিবর্তনের ছোঁয়া। রদবদল হলো পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি পদে।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০১৮, ০৮:২৮ আপডেট: ২১ আগস্ট ২০১৮, ০৮:২৮
প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০১৮, ০৮:২৮ আপডেট: ২১ আগস্ট ২০১৮, ০৮:২৮


সাবেক পিসিবি সভাপতি নাজাম শেঠি (বামে) ও বর্তমান পিসিবি সভাপতি এহসান মানি ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) দুদিন আগেই পাকিস্তানের ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন ইমরান খান। পাকিস্তানের মসনদে ইমরান বসতে না বসতেই দেশটির ক্রিকেটে লাগল পরিবর্তনের ছোঁয়া। রদবদল হলো পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি পদে। ২০ আগস্ট, সোমবার পিসিবি সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করলেন নাজাম শেঠি

অভিজ্ঞ এই সভাপতির পদত্যাগের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের সাবেল সভাপতি এহসান মানিকে পিসিবির নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দিলেন ইমরান খান।

পাকিস্তানের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে শিগগির পিসিবির সভাপতির পদ ছাড়ছেন নাজাম শেঠি। তার জায়গায় নতুন সভাপতি হিসেবে ইমরানের সতীর্থ ওয়াসিম আকরামের নাম বেশ জোরেশোরেই শোনা যায়। এমনকি শোনা গিয়েছিল রমিজ রাজার নামও।

তবে গুঞ্জন পুরোটা না হলেও আংশিকভাবে সত্যি হলো। সোমবার বিকেলেই প্রধানমন্ত্রীর কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন নাজাম শেঠি। ২০১৩-১৪ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের অন্তর্বর্তী চেয়ারম্যান পদ সামলেছিলেন শেঠি। তারপর অর্থাৎ ২০১৪ সালে শাহরিয়ার খান পিসিবির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। কিন্তু গত বছর পিসিবির  ৩০তম চেয়ারম্যান হিসেবে ফের দায়িত্ব পান শেঠি।

সোমবার শেষ হলো পিসিবি সভাপতি হিসেবে ওই অধ্যায়ও। পদত্যাগপত্রে শেঠি বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, যেহেতু পাকিস্তান ক্রিকেটকে নিয়ে আপনার স্বপ্ন ও বিশেষ পরিকল্পনা রয়েছে, সেজন্য তা বাস্তবায়নে আপনার নিয়োজিত একটি ব্যবস্থাপনা কমিটি সবচেয়ে ভালো কাজ করতে পারবে। এ কারণে আমি আমার পদত্যাগপত্র জমা দিচ্ছি।’

শেঠির পদত্যাগের পর পিসিবির নতুন সভাপতি নিয়োগে বেশি সময় নেননি ইমরান খান। দায়িত্ব তুলে দেন আইসিসির সাবেক সভাপতি এহসানির মানির হাতে। ক্রিকেট প্রশাসক হিসেবে এহসান মানির পথচলা দীর্ঘদিনের। ১৯৮৯ থেকে ১৯৯৬ পর্যন্ত তিনি ছিলেন আইসিসিতে পিসিবির প্রতিনিধি।

পরবর্তী সময়ে আরও বিভিন্ন দায়িত্ব পালনের পর ২০০৩ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত ছিলেন আইসিসির প্রেসিডেন্ট। ২০১৪ সালে ক্রিকেট বিশ্বের আর্থিক ও প্রশাসনিক কাঠামো বদলে ‘বিগ থ্রি’র নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার সময়টায় এটির কড়া সমালোচনা করে ক্রিকেট বিশ্বে আলোচনার জন্ম দিয়েছিলেন মানি।

সূত্র: দ্য ডন/ ডেইলি পাকিস্তান

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...